বইকথাঃ গোয়েন্দা গন্ডালু সমগ্র - নলিনী দাশঃ আলোচনা - সহেলী চট্টোপাধ্যায়


গোয়েন্দা গন্ডালু সমগ্র
নলিনী দাশ

আলোচনাঃ সহেলী চট্টোপাধ্যায়


শীতের দুপুরে ছাদে বসে বসে আচার খাওয়ার যে কী আনন্দ সে যে না খেয়েছে সে বুঝতে পারবে না। ঠিক এইরকমই অনুভূতি হল নলিনী দাশের লেখা গোয়েন্দা গন্ডালু সমগ্র পড়ে। গোয়েন্দা গন্ডালুর অ্যাডভেঞ্চার। উপরি পাওনা হল সত্যজিৎ রায়ের অলঙ্করণ। দ্বিতীয় সংকলনে সত্যজিৎ রায়ের আঁকা পঞ্চান্নটি ছবি আছে। প্রথম সংকলনের দশটি গল্পে সত্যজিৎ রায়ের আঁকা চৌত্রিশটি ছবি আছে।
কালু (কাকলি চক্রবর্তী), মালু (মালবিকা মজুমদার), বুলু (বুলবুলি সেন) আর টুলু (টুলু বোস) - এই চারজন মেয়ে একটি বোর্ডিং স্কুলের একই ক্লাসে পড়ে। তারা আবার রুমমেটও বটে। এরা প্রত্যেকেই খুব বন্ধু। এদের এই গ্রুপটার নাম গন্ডালু। প্রত্যেকের ডাকনামের শেষ অক্ষর হল লু। এরা রহস্য ভালোবাসে। যেখানেই বেড়াতে যায় একটা করে রহস্য গজিয়ে ওঠে। এরা তার সমাধান করে। এদের মধ্যে কালু হল দলের পাণ্ডা। এর বুদ্ধি সবচেয়ে বেশি। মালু আবার কবিতা লেখে। খুব গল্পের বই পড়ে (বেশিরভাগই রহস্যের) কল্পনা করতে ভালোবাসে। বুলু খেলোয়াড় হলেও ভীষণ ভীতু। টুলু নিজে এই গল্পের কথক। তার মুখ থেকেই আমরা সব ঘটনা শুনছি। বিপদ বুঝলে এরা নিজেদের মধ্যে কোড ল্যাঙ্গুয়েজ ব্যবহার করে।
গন্ডালুদের স্কুল পশিমবঙ্গ এবং ঝাড়খণ্ডের সীমান্তের কাছাকাছি এক কাল্পনিক অঞ্চলে। গল্পগুলোতে হোস্টেল জীবনের আনন্দের স্বাদ পাওয়া যায়। স্কুলের উঁচু ক্লাস থেকে শুরু করে কলেজ জীবনে লেখিকা নলিনী দাশ কলকাতার হোস্টেলে থেকে পড়াশোনা করেছেন। হয়তো ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতা থেকেই এই হস্টেলের বর্ণনা এসেছে।
লেখিকার কথা একটু বলি এবার। উপেন্দ্রকিশোর রায় চৌধুরীর নাতনি পুণ্যলতার মেয়ে নলিনী। বিয়ে করেন জীবনানন্দ দাশের ভাই অশোকানন্দকে। দীর্ঘকাল তিনি ‘ইনস্টিটিউট অফ এডুকেশন ফর উমেন’-এর অধ্যক্ষা ছিলেন। ১৯৬১ সাল থেকে সন্দেশ পুনঃপ্রকাশিত হতে থাকে সত্যজিৎ রায়ের উদ্যোগে। নলিনী দাশ ছোটোদের জন্য নিয়মিত লিখতে শুরু করেন। ১৯৬৩ সাল থেকে তিরিশ বছর তিনি সন্দেশের নির্বাহী সম্পাদক ছিলেন। অ্যাডভেঞ্চার শুধু ছেলেরাই করতে পারে, এই ধারণা তিনি একদম বদলে দিয়েছিলেন সেই যুগে বসেই।

প্রথম খণ্ডে আছেঃ
  • ·        গোয়েন্দা গন্ডালু
  • ·        জমিদারবাড়ির রহস্য
  • ·        নিখিল বঙ্গ কবিতা সংঘ
  • ·        গুন্ডা ও গন্ডালু
  • ·        রানি রূপমতীর রহস্য
  • ·        সোনার খনির রহস্য
  • ·        টাওয়ার হিলের রহস্য
  • ·        তিব্বতী গুহার ভূত
  • ·        হাতিঘিসার হানাবাড়ি
  • ·        নন্দনকাননে রহস্য
  • ·        তপোবন রহস্য
  • ·        খোয়াই রহস্য
  • ·        অলৌকিক বুদ্ধমূর্তি রহস্য
  • ·        নীলাঞ্জনার দুর্ভোগ।

এর মধ্যে একমাত্র নিখিল বঙ্গ কবিতা সংঘ অ্যাডভেঞ্চার নয় ঠিক মজার গল্প বলা যাতে পারে।

দ্বিতীয় খণ্ডে আছেঃ
  • ·        অভিশপ্ত রাজবাড়ি
  • ·        রঙ্গনগড়ের রহস্য
  • ·        গন্ডালু ও হিড়িম্বাদেবীর রহস্য
  • ·        ঝাউতলার ভূত
  • ·        কলকাতায় গণ্ডালু
  • ·        নন্দিনী নিরুদ্দেশ
  • ·        মাউন্ট আবুর রহস্য
  • ·        ডন পেরেরার দ্বীপ
  • ·        রঙ্গন পাহাড়ের রহস্য
  • ·        দেওদারগঞ্জের ভূত
  • ·        গুপ্তাসাহেবের গুপ্তধন
  • ·        সিমলার মামলা
  • ·        সামলে চলো গণ্ডালু
  • ·        কাঞ্চনপুরের রাজবাড়ি

             এবং
  • ·        শিখর রহস্য।


    একসময় সন্দেশ পত্রিকায় নিয়মিত এই অ্যাডভেঞ্চারগুলো প্রকাশিত হত। গল্পগুলোর ইংরাজি অনুবাদও প্রকাশিত হয়েছে। গল্পগুলোর মধ্যে কিছু বড়োগল্প আর কিছু ছোটোগল্প। আমি আর কাহিনি প্রসঙ্গে কিছু বললাম না। শুধু এটুকু বলতে পারি পাতায় পাতায় মজা আর অ্যাডভেঞ্চার রয়েছেদম বন্ধ করে পড়তে হবে।

গোয়েন্দা গণ্ডালু সমগ্র ১
গোয়েন্দা গন্ডালু সমগ্র ২
নলিনী দাশ
প্রকাশকঃ নিউ স্ক্রিপ্ট
দামঃ ২৩০ টাকা করে এক একটি খণ্ড।

_____

No comments:

Post a Comment