ছড়াঃ সিংহরাজের চিন্তা - সুজাতা চ্যাটার্জী


সিংহরাজের চিন্তা

সুজাতা চ্যাটার্জী


সিংহরাজের রাগ হয়েছে
মুখখানি তার হাঁড়ি,
সবার সাথে বন্ধ কথা
সবার সাথে আড়ি।
সিংহীরানি ভয়ের চোটে
আসছে না তো কাছে,
অন্য যত বনের প্রাণী
তারাও দূরে আছে।
হরিণগুলো আজকে আছে
বড়োই বেশি সুখে,
মাংস নাকি সিংহরাজের
রুচছে না আর মুখে।
রাগের চোটে ফুঁসছে রাজা
নাড়ছে মাথা জোরে,
বলছে, “তোরা থাক না দূরে,
জ্বালাস না আর মোরে।
মনটা আমার বড্ড খারাপ
ভাল্লাগে না কিছু,
ভীষণরকম চিন্তা আমার
ছাড়ছে না তো পিছু।
এমন হেন লম্বা ঘন
মাথায় আমার চুল,
কেমন করে ছাড়াই যে জট
পাই না ভেবে কুল।
আমার কথা কেউ ভাবে না
রয়েছে সবে বেশ,
ইচ্ছে করে সব ব্যাটাকে
চিবিয়ে করি শেষ।”
সবাই যখন ভয় পেয়েছে
এমন কথার ফলে,
চিনচিনে এক মিহি গলা
ঠিক তখনই বলে,
“অভয় পেলে বলতে পারি,
শুনুন মহারাজ,
উপায় আমার রয়েছে জানা
সহজ হবে কাজ।
নেবেন আমায় হালকা করে
থাবার মাঝে তুলে,
আস্তে করে চালিয়ে দেবেন
নিজের মাথার চুলে।
জট বাবাজী বুঝবে মজা
হবেই পগারপার,
চিন্তাগুলো সরবে দূরে
কমবে মাথার ভার।
ছোটো, বড়ো সবাই আছি
যখন যেমন চাই,
আমি আছি, বড়দা আছেন
কিম্বা ছোটো ভাই।”
সিংহ বলে, “ওরে আমার
সোনা মানিক ধন,
আয় না কাছে, লুকিয়ে ছিলিস
কোথায় এতক্ষণ?
চিন্তা আমার শেষ যে হল
ফুটবে মুখে হাসি,
শজারুভাই, তোমায় আমি
বড্ড ভালোবাসি।”
_____

অলঙ্করণঃ সুজাতা চ্যাটার্জী।

2 comments: