ছড়াঃ এসেছে পুজোর বেলাঃ উপাসনা পুরকায়স্থ


এসেছে পুজোর বেলা

উপাসনা পুরকায়স্থ


রোজ রোজ শুধু একঘেয়ে কাজ সকলের সে তো জানা,
ঘুমচোখে ভোরে রোদ্দুর দেখে মুখ হয় হাঁড়িপানা!
ইশকুলে রোজ হয়রানি কত বলা যায় বলো কাকে,
পড়া না পারলে ইতিহাস স্যার হাতটা বাড়িয়ে ডাকে!
অঙ্কের স্যার তিমিরবরণ শাসন জবর কড়া,
লিকপিকে তার হাতের বেতটা কার হাতে যেন গড়া!
বীজগণিতের ফর্মূলা বুঝি সারি সারি ক’টা বিছে,
ঘুমেও এরা দেখা দেয় এসে, ধেয়ে আসে পিছে পিছে।
সবকথা আর জানে কি সকলে, পিঠে বেত কানমলা?
এক পায়ে থাকি, ওঠ-বোস করি কান্নায় বুজে গলা।
ডাকি ভগবান দয়া করো যদি, উপায় তোমার হাতে
ঝর ঝর ধারা বৃষ্টি নামুক ঝঞ্ঝাও থাক সাথে।

টিনের চালেতে ঝম ঝম ঝম ঘুম ভেঙে গিয়ে রাতে,
ভাবছি সেদিন কার বরে যেন স্বর্গ নেমেছে ছাতে।
বিজলি চমক মাঠে ঘাটে জল জানালাটা দেখি খুলে,
আকাশটা জুড়ে কালো কালো মেঘ, কে দিয়েছে কালি গুলে!
মা এসে বললে, দুয়ারে শরৎ এসেছে পুজোর বেলা
খেয়ালি প্রকৃতি ইচ্ছেখুশিতে খেলছে কত কী খেলা!
মাকে বলি, তবুও বৃষ্টি তো এরা, যাব না গো ইশকুলে
জ্বর এসে যাবে নোংরা অমন বৃষ্টির জল ছুঁলে!
_____

অলঙ্করণঃ শুভ্রা ভট্টাচার্য

2 comments: