অণুগল্পঃ সাবধানঃ অরূপ বন্দ্যোপাধ্যায়



সার দিয়ে দাঁড়ানো ছেলেমেয়েগুলো হাত পিছনে করে স্ট্যাচু হয়ে গেল মুহূর্তে। পিটি স্যারের গমগমে গলায় গোটা স্কুল কম্পাউন্ড কেঁপে উঠল। ঠিক তক্ষুনি বিলুর পা চুলকে উঠল। এক পায়ের পাতা উঁচু করে বুড়ো আঙুলের নখ দিয়ে আরেক পায়ের ডিমটা চুলকে নিতেই সে স্যারের নজরে পড়ে গেল। স্যার ধমকে উঠলেন, “বিলু নড়ছিস কেন? বলেছি না, সাবধান বললে কেউ নড়বে না! ডিসিপ্লিন, এটাকে বলে ডিসিপ্লিন। পায়ের উপর দিয়ে সাপ চলে গেলেও কেউ নড়বি না একচুল। চোখের পলক পর্যন্ত পড়া চলবে না।”
সারিবদ্ধ ছেলেমেয়েদের উপর কড়া নজর ফেলতে ফেলতে ঘুরে ঘুরে দেখে নিতে লাগলেন পিটি স্যার সুবোধবাবু। হাতের ছোট্ট লাঠিটা দুই আঙুলের ফাকে নাচাতে নাচাতে ঘুরছেন। বিলুর পা আবার চুলকে উঠল। তবে কি একটা সাপ স্কুল মাঠের ঘাসের গালিচা বেয়ে একেব্বারে বিলুর পায়ে উঠে পড়ল?
“বিশ্রাম!”
বিশ্রাম শুনেই ধাঁ করে নিচু হয়ে হাত চালিয়ে পায়ের গোছে হাত দিয়ে বিলু বোঝে একটা ঘাসের ডগা এতক্ষণ ওকে বিরক্ত করে চলেছে। ওদিকে সুবোধ-স্যার পিটি করার উপযোগিতার উপর তখনও বকবক করছেন। বিলুর জলতেষ্টা পাচ্ছে। স্যারের একটা কথাও ওর কানে ঢুকছে না। বক্তৃতার পর আবার স্যারের গমগমে গলায় শোনা গেল, “সাবধান!”
বিলু হাতের দুই পাতা শরীরের দু’পাশে সোজা রেখে ঘাড় উচু করে অ্যাটেনশনে। ঠিক তখুনি সুবোধ-স্যার “উহ্‌” করে চেঁচিয়ে উঠে ঝুঁকে পড়ে পায়ের ডিম থেকে তুলে আনলেন একটা লাল ডেঁয়ো পিঁপড়ে।
প্রতীকটা বড্ড দুষ্টু। চেঁচিয়ে উঠল, “বিশ্রাম! স্যারকে পিঁপড়ে কেটেছে। বিশ্রাম!”
ছেলের দল হেসে উঠতে সুবোধ-স্যার গর্জে উঠলেন, “কে বলেছে বিশ্রাম? বলেছি না, সাবধান অবস্থায় পায়ের উপর দিয়ে সাপ চলে গেলেও...”


_____

No comments:

Post a Comment