ছড়াঃ ঐতিহাসিকঃ হীরক সেন



যেই খুলেছি মলাট,
অমনি সাহেব বেড়িয়ে বলে
বল তো আমি কে লাট?

এলাম কোথায় আমি?
এত সেনা, লোক লশকর
নয়তো এ পাগলামি।

বলল সাহেব ডেকে,
দৌড়ে যাবি আনবি খবর
মীরজাফরের থেকে।

সব তৈরি কি না?
কাল সকালে লড়ার আগেই
জিতব যুদ্ধখানা?

বোঝো এবার ঠ্যালা,
আমবাগানের ভিড়ের মাঝে
চমকে ওঠার পালা।

নয় ঘটনা বাসী,
চোখের উপর দেখছি জ্যান্ত
প্রান্তর পলাশীর।

শানিয়ে নিলাম বুদ্ধি,
এই সুযোগেই করতে হবে
ইতিহাসের শুদ্ধি।

সোজা সিরাজের কাছে,
দৌড়ে ঢুকে বলব ডেকে
দারুণ খবর আছে।

অনেক কষ্টে বাবু,
অনেক হেঁটে, বেদম হয়ে
খুঁজে পেলাম তাঁবু।

পড়ে গেলাম ধরা,
চর ভেবে হাত-পা বেঁধে
নিয়ে গেল সান্ত্রীরা।

নবাবকে যেই বলা,
কিছু না বুঝেই করল হুকুম
একশত কানমলা।

শুনল না কেউ কথা,
দশ সিপাইয়ে টানল এমন
টাটিয়ে ওঠে ব্যথা।

কানের ব্যথায় জেগে,
তাকিয়ে দেখি মুখের সামনে
বাবা রয়েছেন রেগে।

এই হচ্ছে পড়া,
বই খুলে তুই লাগালি ঘুম?
বাঁদর, হতচ্ছাড়া?

কী করে আর বোঝাই,
বদলে দিতাম একা ইতিহাস!
কপাল খারাপ রে ভাই।

_____

No comments:

Post a Comment