কচিপাতা: গল্প: খরগোশের বুদ্ধি: অহনা


একটা কচ্ছপ দিনেরবেলায় ঘুমোত। আর একটা খরগোশ তার পাহারাদার ছিল। এবার একদিন হল কী, একটা শেয়াল কচ্ছপকে মেরে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করছিল। এবার শেয়ালটা তো আগে থেকেই জানত যে খরগোশটা তার পাহারাদার। এবার তো শেয়ালের মাথায় কিছু বুদ্ধি আসে না। একদিন শেয়াল একটা বুদ্ধি বের করল। যখন খরগোশ রাতেরবেলা ঘুমোচ্ছিল তখন শেয়াল চুপিচুপি এসে কচ্ছপকে ধরে নিয়ে গেল তার গুহায়। কিন্তু শেয়াল জানত না যে কচ্ছপটা রাজা, আর এই খরগোশ তার সেপাই। সে রাতে পাহারা দেয়, আর ঘণ্টা বাজলেও ঘুমোয় না। তারপর খরগোশটা একটা বুদ্ধি বের করল শেয়ালটাকে মজা দেখানোর জন্য। পরদিন যখন শেয়াল জঙ্গলে একটা পশু মারার জন্য যাচ্ছিল তখন খরগোশটা রাস্তাতে পড়ে রইল। শেয়াল ভাবল এই খরগোশটা তো মরে গেছে, আমি একটা পশু মেরে এসে তারপর খরগোশটাকে খাব। এরপর যখন একটা পশু ধরার জন্য চলে গেল শেয়াল তখন খরগোশটা চুপিচুপি শেয়ালের গুহায় ঢুকে কচ্ছপকে বলল, “মহারাজ, আপনি এখান থেকে বের হয়ে বাড়ি যান। আর যেন শিয়ালটা টের না পায়।”

কচ্ছপ তাড়াতাড়ি গুহা থেকে বের হয়ে বাড়ি গেল। খরগোশটা একটা বুদ্ধি বের করল। তার বাড়ি থেকে ছোটোবড়ো কয়েকটা কাঠের টুকরো নিয়ে এল আর তা দিয়ে একটা মূর্তি বানিয়ে শেয়ালের গুহার মুখে রেখে দিল। অন্ধকারে শেয়াল ফিরে এসে ওই মূর্তি দেখে ভয়ে লেজ তুলে ছুটে পালাল। আর কোনোদিন সে বনে ফিরে এল না।


___


No comments:

Post a Comment